Trending Now

তিন স্ত্রী ছাড়াও একাধিক পরকীয়া, নিজের সন্তানের সংখ্যাই জানেন না পেলে!

ফুটবল সম্রাট পেলে, যিনি ‘কালো মানিক’ নামেও পরিচিত। কিংবদন্তি পেলে ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ জিতেছেন তিনবার। বর্ণাঢ্য ফুটবল ক্যারিয়ারে তিনি করেছেন ১ হাজার গোল।

তবে গোলের সংখ্যা জানলেও পেলে জানেন না তার সন্তানের সংখ্যা। জীবন সায়াহ্নে এসে এমনই চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি দিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি।

তিনি বলেছেন, নিজের তিন স্ত্রী ছাড়াও বহু বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল তার। বান্ধবীদের সঙ্গে তার বহু সন্তানেরও জন্ম হয়েছে। সব মিলিয়ে তার সন্তানের সংখ্যা কত? সেটা নাকি তিনি জানেনই না।

 

সম্প্রতি পেলেকে নিয়ে একটি ডকুমেন্টরি প্রকাশিত হয়েছে। তাতেই এইসব চাঞ্চল্যকর দাবি করতে শোনা গিয়েছে কিংবদন্তিকে। তিনি বলেছেন, তার তিন স্ত্রী। তিনবার বিয়ে করার পরও বহু বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল তার। সেই বান্ধবীদের অনেকের গর্ভেই তার সন্তানের জন্ম হয়। যা প্রথমে জানতেই পারেননি পেলে।

ফুটবল সম্রাট জানিয়েছেন, নিজের একাধিক সন্তানের সঙ্গে তার পরিচয় হয় অনেক পরে। তবে, সব মিলিয়ে নিজের কতগুলো সন্তান আছে, সেটার সঠিক হিসাব নাকি নিজেও জানেন না। যদিও পেলের দাবি, তার এই বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কগুলোর ব্যাপারে সবটাই তার স্ত্রীরা জানতেন। কারও কাছে কোনও কিছুই তিনি গোপন করেননি।

প্রসঙ্গত, ১৯৬৬ সালে রোসমেরির সঙ্গে প্রথমবার বিয়ের পিঁড়িতে বসেন পেলে। তার দ্বিতীয় বিয়ে হয় ১৯৯৪ সালে আজিরিয়া নামের এক মডেলের সঙ্গে। প্রথম দুই স্ত্রীর গর্ভে সরকারিভাবে পেলের সন্তান সংখ্যা পাঁচ। ২০০৮ সালে দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়ার পর ৭৫ বছর বয়সে এসে ২০১৬ সালে শেষবার বিয়ের পিড়িতে বসেন ফুটবল সম্রাট। এবার বিয়ে করেন ৫০ বছরের মডেল অভিনেত্রী মারসিয়া আওকিকে। সব মিলিয়ে সরকারিভাবে ৭ জন সন্তান আছেন পেলের। এতদিন বাদে ফুটবল সম্রাট ফাঁস করলেন এই ৭ জনের বাইরেও আরও বেশ কয়েক জন সন্তান তার আছে। তবে, সেটা ঠিক কতজন তা জানেন না তিনি নিজেও। শেষ বয়সে পেলের এই  এই চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়ে গিয়েছে।

About STAR CHANNEL

Check Also

দলকে শুভ কামনা জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন সাকিব

সন্তানসম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকতে মাকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। রবিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *