Trending Now

ফের লকডাউন, নিউজিল্যান্ডে নতুন করে করোনা আতঙ্ক

নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে বড় শহরে লকডাউন জারি হয়েছে গতকাল রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) দিবাগত রাত থেকে। তিন দিনের জন্য লকডাউন করা হচ্ছে অকল্যান্ড শহরকে।

জানা গেছে, অকল্যান্ড শহরে করোনার নতুন করে আক্রান্ত হওয়ার খবর সামনে আসার পরেই দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডারন গত শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) মন্ত্রিসভার সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। সেই বৈঠকেই তিনদিনের এই লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জেসিন্ডা আর্ডারন জানিয়েছেন, শহরে পাওয়া নতুন করোনা সংক্রমণের ব্যাপারে যতদিন না সব তথ্য জানা যাচ্ছে, ততদিন তিনি সতর্ক থাকছেন। এই করোনাভাইরাস আগের থেকেও বেশি সংক্রামক কিনা তাও খুঁটিয়ে দেখা হচ্ছে।

 

তিনি আরও জানিয়েছেন, অকল্যান্ডের মতো যাতে অন্য শহরকেও লকডাউন করতে না হয়, সেকথা মাথায় রেখে দেশের অন্য অংশেও চূড়ান্ত বিধিনিষেধ মেনে চলা হবে।

নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য কর্মকর্তরা জানিয়েছেন, অকল্যান্ডে একই পরিবারের তিন সদস্য এমন এক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, যেগুলিকে এখনও সনাক্ত করা যায়নি। আর সেই কারণেই নতুন এই করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে, সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, নতুন এই করোনায় আক্রান্তের ঘটনা সামনে আসার পর নিজের যাবতীয় পরিকল্পনায় পরিবর্তন এনেছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডারন। করোনা রুখতে মন্ত্রীসভার সঙ্গে আলোচনা করার জন্য রাজধানী ওয়েলিংটনে ফিরে আসেন।

উল্লেখ্য, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অন্য দেশের তুলনায় যথেষ্ট সফল নিউজিল্যান্ড। যখন অন্যান্য বহু দেশে করোনার মারাত্মক প্রভাব ছিল, সে সময় নিউজিল্যান্ড করোনাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে অনেকটাই সক্ষম হয়েছিল। এখনও বাইরে থাকা আসা কিছু ব্যক্তি নিউজিল্যান্ডে করোনা আক্রান্ত হিসেবে চিহ্নিত হচ্ছে ঠিকই, তবে তাদের জন্য ১৫ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করেছে সরকার।

About STAR CHANNEL

Check Also

নেপালে এক মাসেই করোনা সংক্রমণ ৩০ গুণ বৃদ্ধি

ভারতের পর এবার করোনার ছোঁয়া লেগেছে প্রতিবেশী হিমালয়ের দেশ নেপালেও। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে, দেশটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *