Trending Now

নস্ত্রাদামুসের ভবিষ্যদ্বাণীতে ২০২১

২০২০-তে করোনার ভয়াবহ রূপ দেখেছে পুরো বিশ্ব। তাই ২০২১-এর দিকে তাকিয়ে সবাই। সবার একটাই প্রার্থনা, যেন নতুন বছর ভালোভাবে কাটে। তবে ফরাসি ভবিষ্যৎ-বক্তা নস্ত্রাদামুসের যে ভবিষ্যদ্বাণী উঠে আসছে, তাতে আতঙ্ক আরও বাড়ছে। আশঙ্কা, ২০২০-এর থেকেও খারাপ সময় আসছে ২০২১-এ।

২০২১ সালে, একটি দুর্ভিক্ষ আসবে, বিশ্ব এর আগে কখনও এর মুখোমুখী হয়নি। বিশ্বের জনসংখ্যার একটি বড় অংশ এই ধ্বংসের হাত থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হবে না। ২০২১ সালে সৌরজগতে ধ্বংসের ফলে পৃথিবী ক্ষতিগ্রস্ত হবে। জলবায়ু পরিবর্তন ও সংঘাতের রূপ নেবে। সম্পদের জন্য বিশ্বে লড়াই শুরু হবে।

২০২১ সালে পৃথিবীতে ধূমকেতু আঘাত হানবে 

 

নস্ত্রাদামুসের আরও ভবিষ্যদ্বাণী- ধূমকেতু পৃথিবীতে আঘাত হানবে, যা ভূমিকম্প ও অনেক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণ ঘটবে। পৃথিবীর কক্ষপথে প্রবেশের পরে এই গ্রহাণু মারাত্মক আকার নেবে। আকাশে এই দৃশ্যটি ‘গ্রেট ফায়ার’ এর মতো হবে।

২০২১ সালে মানুষ জোম্বি হয়ে উঠবে

একজন রাশিয়ান বিজ্ঞানী এমন জৈবিক অস্ত্র ও ভাইরাস বিকাশ করবেন, যা মানুষকে জোম্বি করে তুলবে। এভাবে মানুষের প্রজাতি ধ্বংস হয়ে যাবে। করোনাভাইরাসজনিত গভীর সমস্যার উদাহরণ আমাদের সামনে উঠে এসেছে। অনেক বিশেষজ্ঞের বিশ্বাস, করোনাভাইরাস চীনের একটি ল্যাবে প্রস্তুত করা হয়েছিল। নস্ত্রাদামুস মতে, এবার রাশিয়ায় একটি নতুন ভাইরাস তৈরি করে মানবজাতি ধ্বংস করবে।

আশ্চর্যের বিষয়, নাসার বিজ্ঞানীরাও ইতোমধ্যে একটি বিশাল ধূমকেতুকে পৃথিবীতে আঘাত করার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। বিজ্ঞানীরা বলেছেন যে, এই গ্রহাণুটির শক্তি ১৯৪৫ সালে হিরোশিমায় ফেলে আসা পারমাণবিক বোমার চেয়ে ১৫ গুণ বেশি হবে।

২০২১ সালে করোনার কী হবে?

নস্ত্রাদামুসের ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী, ২০২০ সালকে মহামারির বছর হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছিল। এমন পরিস্থিতিতে, ২০২১-কেও নিরাপদ বলা যাচ্ছে না। বৃটেনে করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন পাওয়ার পরে, আশঙ্কার মেঘ পুরো বিশ্বজুড়ে ঘনাচ্ছে।

ব্রেন চিপ- মানবজাতিকে বাঁচাতে আমেরিকান সৈন্যদের কমপক্ষে সাইবারসের মতো মানসিক স্তরে প্রতিস্থাপন করা হবে। এর জন্য ব্রেন চিপ ব্যবহার করা হবে। এই চিপটি মানুষের মস্তিষ্কের জৈবিক বুদ্ধি বাড়ানোর জন্য কাজ করবে। এর অর্থ হলো আমরা আমাদের বুদ্ধি ও দেহে কৃত্রিম বুদ্ধি অন্তর্ভুক্ত করব।

ক্যালিফোর্নিয়ায় ভূমিকম্প

এখনও অবধি প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও মহামারি সম্পর্কে নস্ত্রাদামুসের করা ভবিষ্যদ্বাণীগুলো সঠিক প্রমাণিত হয়েছে। এ ক্ষেত্রে, ২০২১ সালটি আরও ভয়াবহ হতে পারে। একটি ভূমিকম্প বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে বিপর্যয় সৃষ্টি করতে পারে। একটি ভয়াবহ ভূমিকম্প ‘নিউ ওয়ার্ল্ড’ ধ্বংস করবে। ক্যালিফোর্নিয়াকে তার যৌক্তিক জায়গা বলা যেতে পারে, যেখানে এটি ঘটতে পারে।

ভবিষ্যদ্বাণীগুলোর কতটা প্রভাব 

বিজ্ঞানীরা এই ভবিষ্যদ্বাণীগুলোকে খুব বেশি গুরুত্ব দেন না। তবে যারা নস্ত্রাদামুসের ভবিষ্যদ্বাণীর ওপর চর্চা করেন, তারা বিশ্বাস করেন যে, আসন্ন বছরটি একটি বিপর্যয় হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে। এই দাবিগুলোতে কতটা শক্তি ও সত্যতা রয়েছে, তা কেবল ২০২১-ই তুলে ধরবে।

About STAR CHANNEL

Check Also

বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯ কোটি ৯৭ লাখ ছাড়াল

বিশ্বজুড়ে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। এখন পর্যন্ত সারা বিশ্বে করোনায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *