Trending Now

ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে নারীকে বাস থেকে ফেলে দেন চালক

সুনামগঞ্জে চলন্ত বাসে এক নারীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে তাকে ‘হত্যা করতে’ রাস্তায় ফেলে দিয়েছিলেন চালক শহিদ মিয়া। গুরুতর আহত ওই নারীকে পথচারীরা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ায় তিনি প্রাণে বেঁচে যান।

ওই ধর্ষণচেষ্টার ঘটনার মামলার প্রধান আসামি শহিদকে গ্রেফতারের পর আজ রবিবার রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলন করে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অতিরিক্ত উপ মহাপরিদর্শক হাসিব আজিজ বলেন, ‌‘বাসচালক শহীদ মিয়াকে গ্রেফতারের পর ভুক্তভোগীর কাছে নেওয়া হলে, তিনি প্রধান আসামিকে শনাক্ত করেন। সেসময় ওই নারী জানান, শহীদ মিয়াই ধর্ষণচেষ্টা শুরু করেন। এর আগে বাসচালকের সহকারী রশীদকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। রশীদের আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তিনি তার দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন। বাসচালককে গ্রেফতারে পর তিনি প্রাথমিকভাবে আমাদের কাছে যে তথ্য দিয়েছেন, তার সঙ্গে রশীদের জবানবন্দির মিল রয়েছে। একই সঙ্গে ভিক্টিমের (ভুক্তভোগী) দেওয়া তথ্যও এক।’

 

তিনি আরও বলেন, ‘বাসটি সিলেট থেকে সুনামগঞ্জে যাচ্ছিল। সুনামগঞ্জের ১৬ কিলোমিটার আগে একটি বাইপাস আছে, সেই বাইপাস হয়ে দিরাইয়ে ওই নারীকে নামিয়ে দিয়ে সুনামগঞ্জে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যাত্রীরা সব নেমে যাওয়ার পর বাসচালক স্টিয়ারিং হুইল হেলপার (চালকের সহকারী) বক্করের কাছে দিয়ে নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে।’

সিআইডির এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘বাসটি চলার সময় (গত ২৬ ডিসেম্বর) নারীকে চুলের মুঠি ধরে চালক পেছনে নিয়ে যান। এরপর তার ব্যাগ ধরে টানাটানি করেন। ব্যাগ সামনে রেখে ওই নারী নিজেকে রক্ষা করার চেষ্টা করেন। চালক ব্যাগ টেনে ছিড়ে ফেলেন। ব্যাগের জিনিসপত্র সব বাসের ভেতরে পড়ে যায়।’

সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুক্তা ধরের নেতৃত্বে নেতৃত্বে একটি দল শনিবার (২ জানুয়ারি) সুনামগঞ্জের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড থেকে শহিদ মিয়াকে গ্রেফতার করে। শহিদ সিলেটের মোল্লারগাঁও এলাকার বাসিন্দা।

About STAR CHANNEL

Check Also

গোপনে নারীর গোসলের ভিডিও ধারণের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে গোপন ক্যামেরায় নারীর গোসলের ভিডিও ধারণ ও দম্পতির অন্তরঙ্গ ভিডিও ধারণের চেষ্টার অভিযোগে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *